মানব কল্যাণ প্রবন্ধের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

প্রিয় পাঠক ধন্যবাদ আপনার অনুসন্ধান এবং আমাদের সাইটে ভিজিট করার জন্য। আপনি যদি ইতিমধ্যে অনুসন্ধান করে থাকেন মানব কল্যাণ প্রবন্ধের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর নিয়ে তবে এই আর্টিকেলের মাধ্যমে জানতে পারবেন। মাধ্যমিক পড়াশোনায় সিলেবাস ভুক্ত এই গল্পটি। চলুন তবে দেখে নেওয়া যাক।

প্রশ্ন ১। আবুল ফজল কত সালে জন্মগ্রহণ করেন?

উত্তর : আবুল ফজল ১৯০৩ সালে জন্মগ্রহণ করেন। |

প্রশ্ন ২। আবুল ফজল কোথায় জন্মগ্রহণ করেন?

উত্তর : আবুল ফজল চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন।

প্রশ্ন ৩। আবুল ফজল কত বছর কলেজে অধ্যাপনা করেছেন?

উত্তর : আবুল ফজল প্রায় ত্রিশ বছর কলেজে অধ্যাপনা করেছেন। |

প্রশ্ন ৪। আবুল ফজলের পিতার নাম কী?

উত্তর : আবুল ফজলের পিতার নাম ফজলুর রহমান।

প্রশ্ন ৫। আবুল ফজল কোথায় শিক্ষাজীবন অতিবাহিত করেন?

উত্তর : আবুল ফজল চট্টগ্রাম ও ঢাকায় শিক্ষাজীবন অতিবাহিত করেন।

প্রশ্ন ৬। আবুল ফজল কত সালে মারা যান?

উত্তর : আবুল ফজল ১৯৮৩ সালে মারা যান।

প্রশ্ন ৭। কোন কথাটি মামুলি অর্থে ব্যবহৃত হয়ে থাকে?

উত্তর : মানব-কল্যাণ’ কথাটি।

প্রশ্ন ৮। একমুষ্টি ভিক্ষা দেওয়াকে আমরা সাধারণভাবে কী মনে করে থাকি?

উত্তর : মানবকল্যাণ।

প্রশ্ন ৯। মানুষ যে হাত পেতে গ্রহণ করে, সেটি কোন হাত?

উত্তর : নিচের হাত।

প্রশ্ন ১০। অনুগ্রহকারী আর অনুগৃহীতের মধ্যে কোন দিক থেকে তফাত?

উত্তর : অনুগ্রহকারী আর অনুগৃহীতের মধ্যে মনুষ্যত্ব ও মানবমর্যাদার দিক থেকে তফাত।

প্রশ্ন ১১। জাতির যৌথ জীবন আর যৌথ চেতনার প্রতীক কী?

উত্তর : রাষ্ট্র জাতির যৌথ জীবন আর যৌথ চেতনার প্রতীক।

প্রশ্ন ১২। রাষ্ট্রের বৃহত্তর দায়িত্ব কী?

উত্তর : রাষ্ট্রের বৃহত্তর দায়িত্ব জাতিকে আত্মমর্যদাসম্পন্ন করে তােলা।

প্রশ্ন ১৩। মানবকল্যাণের উৎস কিসের মধ্যে নিহিত?

উত্তর : মানবকল্যাণের উৎস মানুষের মর্যাদাবােধ আর মানবিক | চেতনা বিকাশের মধ্যে নিহিত।

প্রশ্ন ১৪। মানব-কল্যাণ’ প্রবন্ধে একদিন এক ব্যক্তি কার কাছে ভিক্ষা চাইতে এসেছিল?

আরো পড়ুনঃ  আমার পথ প্রবন্ধের সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর

উত্তর : ইসলামের নবির কাছে এক ব্যক্তি ভিক্ষা চাইতে এসেছিল।

প্রশ্ন ১৫। মানব-কল্যাণ’ প্রবন্ধে উল্লিখিত ইসলামের নবি ভিক্ষুককে কী কিনে দিয়েছিলেন?

উত্তর : ইসলামের নবি ভিক্ষুককে একখানা কুড়াল কিনে দিয়েছিলেন।

প্রশ্ন ১৬। মানবকল্যাণের প্রাথমিক সােপান কী?

উত্তর : মানবিক বৃত্তি বিকাশের যথাযথ ক্ষেত্র রচনা করা।

প্রশ্ন ১৭। মানবকল্যাণের প্রাথমিক সােপান রচনার দায়িত্ব কার?

উত্তর : মানবকল্যাণের প্রাথমিক সােপান রচনার দায়িত্ব সমাজ ও রাষ্ট্রের।।

প্রশ্ন ১৮। মানুষের ভবিষ্যৎ জীবনের সূচনা হয় কোথা থেকে?

উত্তর : মানুষের ভবিষ্যৎ জীবনের সূচনা হয় পরিবার থেকে।

প্রশ্ন ১৯। প্রত্যেক মানুষ কিসের সঙ্গে সম্পর্কিত?

উত্তর : প্রত্যেক মানুষ সমাজের সঙ্গে সম্পর্কিত।

প্রশ্ন ২০। সামগ্রিকভাবে সমাজের ভালাে-মন্দের সঙ্গে কোনটি সংযুক্ত?

উত্তর : মানবকল্যাণ সমাজের ভালাে-মন্দের সঙ্গে সংযুক্ত।

প্রশ্ন ২১। কোন মনােভাব নিয়ে কারও কল্যাণ করা যায় না?

উত্তর : বিভক্তিকরণের মনােভাব নিয়ে কারও কল্যাণ করা যায় না। |

প্রশ্ন ২২। সত্যিকার মানবকল্যাণ কিসের ফসল?

উত্তর : সত্যিকার মানবকল্যাণ মহৎ চিন্তা-ভাবনার ফসল।

প্রশ্ন ২৩। কারা মানবিক চিন্তা আর আদর্শের উত্তরাধিকার রেখে গেছেন?

উত্তর : বাংলাদেশের মহৎ প্রতিভাবান সবাই।

প্রশ্ন ২৪। মহৎ প্রতিভাবানদের উত্তরাধিকারকে আমরা কী করতে পারিনি?

উত্তর : আমাদের জীবনে প্রয়ােগ করতে পারিনি।

প্রশ্ন ২৫। কারা মানবিক চেতনার উদাত্ত কণ্ঠস্বর?

উত্তর : বিদ্যাপতি, চণ্ডীদাস, রবীন্দ্রনাথ, নজরুল প্রমুখ মানবিক চেতনার উদাত্ত কণ্ঠস্বর।

প্রশ্ন ২৬। “তুমি অধম, তাই বলিয়া আমি উত্তম হইব না কেন?” উক্তিটি কার?

উত্তর : বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের। |

প্রশ্ন ২৭। আমাদের দৃষ্টিভঙ্গিকে কী করতে হবে?

উত্তর : আমাদের দৃষ্টিভঙ্গিকে পালটাতে হবে।।

প্রশ্ন ২৮। কীভাবে সমস্যার মােকাবিলা করতে হবে?

উত্তর : নতুন দৃষ্টিকোণ থেকে সমস্যার মােকাবিলা করতে হবে।

প্রশ্ন ২৯। জোড়াতালি দিয়ে কী করা যায় না?

উত্তর : জোড়াতালি দিয়ে কোনাে সমস্যার সমাধান করা যায় না ।

প্রশ্ন ৩০। কীভাবে কল্যাণময় পৃথিবী রচনা করা সম্ভব?

আরো পড়ুনঃ  আমার পথ প্রবন্ধের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

উত্তর : মুক্তবুদ্ধির সহায়তায় সুপরিকল্পিত পথে কল্যাণময় পৃথিবী | রচনা করা সম্ভব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.