সুভা গল্পের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

প্রিয় পাঠক ধন্যবাদ আপনার অনুসন্ধান এবং আমাদের সাইটে ভিজিট করার জন্য। আপনি যদি ইতিমধ্যে অনুসন্ধান করে থাকেন সুভা গল্পের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর নিয়ে তবে এই আর্টিকেলের মাধ্যমে জানতে পারবেন। মাধ্যমিক পড়াশোনায় সিলেবাস ভুক্ত এই গল্পটি। চলুন তবে দেখে নেওয়া যাক।

প্রশ্ন ১) প্রতাপ সুভার মর্যাদা বুঝত কেন? 

উত্তর : ছিপ ফেলে মাছ ধরার সময় বাক্যহীন সঙ্গীই সর্বাপেক্ষা শ্ৰেষ্ঠ বলে প্রতাপ সুভার মর্যাদা বুঝত।।

প্রশ্ন ২) সুভা কার কাছে মুক্তির আনন্দ পায়? রা. বাে. ‘২০]

উত্তর : সুভা বিপুল নির্বাক প্রকৃতির কাছে মুক্তির আনন্দ পায়।

প্রশ্ন ৩) ‘সুভা’ গল্পে একমাত্র কে সুভার মর্যাদা বুঝত? (য. বাে. ‘২০]

উত্তর : ‘সুভা’ গল্পে একমাত্র সুভার মর্যাদা বুঝত প্রতাপ।

প্রশ্ন ৪) সুভার মা সুভার প্রতি বিরক্ত ছিলেন কেন? চি, বাে, ‘২০]

উত্তর : জন্ম থেকে সুভা কথা বলতে পারত না বলে সুভার মা তাকে নিজের গর্ভের কলঙ্ক জ্ঞান করে তার প্রতি বিরক্ত ছিলেন। 

প্রশ্ন ৫) কিশলয়’ অর্থ কী? | [সি, বাে, ‘২০]

উত্তর : ‘কিশলয়’ অর্থ গাছের নতুন পাতা।।

প্রশ্ন ৬। সুভা দুই বাহুতে কাকে ধরে রাখতে চায়? বি. বাে. ‘২০] 

উত্তর : সুভা দুই বাহুতে প্রকাণ্ড মূক মানবতাকে ধরে রাখতে চায় ।।

প্রশ্ন ৭ ‘সুভা’ গল্পে কাকে অকর্মণ্য বলা হয়েছে? মি. বাে, ‘২০]

উত্তর : সুভা’ গল্পে প্রতাপকে অকর্মণ্য বলা হয়েছে।

প্রশ্ন ৮ প্রতাপের প্রধান শখ কী? বি. বাে, ‘১৯]

উত্তর : প্রতাপের প্রধান শখ ছিপ ফেলে মাছ ধরা।

প্রশ্ন ৯) সুভা জলকুমারী হলে কী করত?[দি. বাে’১৯]

উত্তর : সুভা জলকুমারী হলে আস্তে আস্তে জল থেকে উঠে সাপের মাথায় মণি ঘাটে রেখে যেত।

প্রশ্ন ১০ ‘গােরা’ কোন শ্রেণির রচনা? [মির্জাপুর ক্যাডেট কলেজ, টাঙ্গাইল)।

উত্তর : ‘গােরা’ উপন্যাস শ্রেণির রচনা।

প্রশ্ন ১১) সুভার বাবার নাম কী? সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ, ঢাকা]

আরো পড়ুনঃ  বই পড়া প্রবন্ধের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

উত্তর : সুভার বাবার নাম বাণীকণ্ঠ ।

প্রশ্ন ১২) বাণীকণ্ঠর আর্থিক অবস্থা কেমন?বি এ এফ শাহীন কলেজ, ঢাকা]

উত্তর : বাণীকণ্ঠর আর্থিক অবস্থা সচ্ছল। 

প্রশ্ন ১৩ গোঁসাইদের ছােট ছেলেটির নাম কী? কুলাউড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।

উত্তর : গোসাইদের ছােট ছেলেটির নাম প্রতাপ।

প্রশ্ন ১৪ ‘ঝিল্লিরব’ অর্থ কী? বেগুড়া ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ]

উত্তর : ‘ঝিল্লিরব’ অর্থ ঝিঝি পােকার আওয়াজ বা শব্দে মুখর।।

প্রশ্ন ১৫) সুভাষিণীর বড় দুই বােনের নাম কী? | ক্লিাসিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ, সিলেট]

উত্তর : সুকেশিনী ও সুহাসিনী। |

প্রশ্ন ১৬সুভা কোথায় বসে থাকত? (খাগড়াছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় 

উত্তর : সুভা তেঁতুলতলায় বসে থাকত।

প্রশ্ন ১৭) সুভার পুরাে নাম কী? | : সরকারি এস.সি. বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, সুনামগঞ্জ

উত্তর : সুভার পুরাে নাম সুভাষিণী।।

প্রশ্ন ১৮ ‘সুভা’ কী জাতীয় রচনা? সরকারি কারিগরি উচ্চ বিদ্যালয়

উত্তর : সুভা’ ছােটগল্প জাতীয় রচনা।

প্রশ্ন ১৯। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রথম কাব্যগ্রন্থের নাম কী? | জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, সিলেট। উত্তর : রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রথম কাব্যগ্রন্থের নাম ‘বনফুল’।

প্রশ্ন ২০ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা কত তারিখে জন্মগ্রহণ করেন?

উত্তর : ২৫শে বৈশাখ। |

প্রশ্ন ২১। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ইংরেজি কত তারিখে জন্মগ্রহণ করেন?

উত্তর : রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ৭ই মে জন্মগ্রহণ করেন।

প্রশ্ন ২২। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের পিতামহের নাম কী?

উত্তর : প্রিন্স দ্বারকানাথ ঠাকুর।

প্রশ্ন ২৩) কোন কাব্যের জন্য রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর নােবেল পুরস্কার লাভ করেন?

উত্তর : গীতাঞ্জলি’ কাব্যের জন্য রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর নােবেল পুরস্কার লাভ করেন।

প্রশ্ন ২৪) এশীয়দের মধ্যে প্রথম সাহিত্যে নােবেল পুরস্কার লাভ করেন কে?

উত্তর : এশীয়দের মধ্যে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর প্রথম সাহিত্যে নােবেল পুরস্কার লাভ করেন।

প্রশ্ন ২৫। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বনফুল’ কাব্য প্রকাশিত হয় তার কত বছর বয়সে?

উত্তর : ১৫ বছর বয়সে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘বনফুল’ কাব্য প্রকাশিত হয়। |

প্রশ্ন ২৬। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কত সালে নােবেল পুরস্কার লাভ করেন?

আরো পড়ুনঃ  প্রবাস বন্ধু গল্পের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

উত্তর : রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ১৯১৩ সালে নােবেল পুরস্কার লাভ করেন।

প্রশ্ন ২৭) রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা কত সনে মৃত্যুবরণ করেন?

উত্তর : রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা ১৩৪৮ সনে মৃত্যুবরণ করেন।

প্রশ্ন ২৮। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ইংরেজি কত সালে মৃত্যুবরণ করেন? উত্তর : ১৯৪১ সালে।

প্রশ্ন ২৯ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কোথায় মৃত্যুবরণ করেন?

উত্তর : রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কলকাতায় মৃত্যুবরণ করেন।

প্রশ্ন ৩০। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের পিতার নাম কী?

উত্তর : মহর্ষি দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর।

প্রশ্ন ৩১ ) বাণীকণ্ঠর ছােট মেয়ের নাম কী?

উত্তর : সুভাষিণী (সুভা)।।

প্রশ্ন ৩২। ছােট মেয়েটার নাম সুভাষিণী রাখা হয়েছিল কেন?

উত্তর : বড় দুই বােনের নামের সাথে মিলের অনুরােধে ছােট মেয়েটির নাম সুভাষিণী রাখা হয়েছিল ।

প্রশ্ন ৩৩) সুভাষিণীকে সবাই সংক্ষেপে কী নামে ডাকত?

উত্তর : সুভাষিণীকে সবাই সংক্ষেপে সুভা’ নামে ডাকত।

প্রশ্ন ৩৪) বাণীকণ্ঠর বড় মেয়ে দুটির বিয়ে কীভাবে হয়েছে?

উত্তর : দস্তুরমতাে অনুসন্ধান ও অর্থব্যয়ে বাণীকণ্ঠর বড় মেয়ে। দুটির বিয়ে হয়েছে।

প্রশ্ন ৩৫। ছােট মেয়েটি পিতা-মাতার কোন অনুভূতির মতাে বিরাজ করছিল?

উত্তর : ছােট মেয়েটি পিতা-মাতার নীরব হৃদয়ভারের মতাে বিরাজ করছিল।

প্রশ্ন ৩৬ সভা কথা না বলতে পারলেও কী করতে পারত?

উত্তর : সুভা কথা না বলতে পারলেও অনুভব করতে পারত।

প্রশ্ন ৩৭) সুভা সবসময় কোন চেষ্টা করত?

উত্তর : সুভা সবসময় নিজেকে সবার কাছ থেকে গােপন করার চেষ্টা করত।

প্রশ্ন ৩৮। সুভা কী মনে করত?

উত্তর : সুভা মনে করত তাকে সবাই ভুলে গেলে সে বাঁচে।

প্রশ্ন ৩৯) সুভার মা সুভাকে কীভাবে দেখতেন?

উত্তর : সুভার মা সুভাকে তার নিজের ত্রুটিস্বরূপ দেখতেন।

প্রশ্ন ৪০। মায়েরা মেয়েকে কিসের অংশরূপে দেখেন?

উত্তর : মায়েরা মেয়েকে নিজের অংশরূপে দেখেন।

প্রশ্ন ৪১ মেয়ের কোনাে ত্রুটি থাকলে মায়েরা তা কীভাবে দেখেন?

উত্তর : মেয়ের কোনাে ত্রুটি থাকলে মায়েরা নিজের ত্রুটি হিসেবে দেখেন। 

আরো পড়ুনঃ  মমতাদি গল্পের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন ৪২ বাণীকণ্ঠ তিন মেয়ের মধ্যে কাকে বেশি ভালােবাসতেন?

উত্তর : বাণীকণ্ঠ তিন মেয়ের মধ্যে সুভাকে বেশি ভালােবাসতেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.